LifeStyleComputer Tips

কম্পিউটার ল্যাপটপের সামনে শরীরের কোন ক্ষতি ছাড়াই দীর্ঘ সময় কাটানোর উপায়

কম্পিউটারের ক্ষতিকর আলো থেকে চোখ রক্ষা করার উপায়

বর্তমানে আমাদের একটা দিনও মোবাইল কম্পিউটার ছাড়া চলেই না । আর যারা কম্পিউটার নিয়ে পড়াশোনা করেন অথবা কাজ করেন তাদেরকে তো বেশিরভাগ সময়ই কম্পিউটারের সামনেই থাকতে হয় । আমি যেহেতু সিএসই তে পড়াশোনা করি এবং টেক নিয়ে কাজ করি তাই আমি ২৪ ঘন্টার মধ্যে মিনিমাম ১৭ ঘন্টাই কম্পিউটারের সামনে থাকি ।

তো এভাবে লং টাইম কোন প্রটেকশন ছাড়া যদি আমরা মোবাইল কম্পিউটারের সামনে থাকি তাহলে কিন্তু আমাদের চোখের বিরাট বড় ক্ষতি হয়ে যাবে । তাছাড়া কোমর ব্যথা,গাড় ব্যাথা এগুলো তো সাথে একদম ফ্রি । তাই আজকে আমি আপনাদের সাথে আমার ইউজ করা কিছু ব্লু লাইট ফিল্টার এপ, ২০-২০-২০ রুলস মেনটেইন করার এপ, রেডিয়েশন থেকে বাঁচার উপায় সহ প্রয়োজনীয় কিছু রিসোর্স এবং টিপস শেয়ার করতে যাচ্ছি ।

যতদিন দুনিয়াতে থাকবেন কাজ করে যেতে হবেই তবে চোখের প্রতি অবহেলা না, চোখের এবং শরীরের যত্ন নিয়েই কাজ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব ।

তাছাড়া আমার টিপসগুলো ফলো করার মাধ্যমে আপনি আপনার শরীরকে হাইড্রেট রাখতে পারবেন । যেহেতু আমাদের দেহের ৭০% ই পানি তাই আমাদেরকে সেই পানির চাহিদাও পূরণ করতে হবে । লং টাইম কম্পিউটার বা মোবাইল নিয়ে বসে থাকলে অনেকে পানি তো দূরের কথা ঠিকভাবে ভাত খাওয়ার কথাই ভুলে যান ।

তো আজকে আপনাদেরকে কমপ্লিট সলিউশন দেওয়ার ট্রাই করবো তবে আপনাকে অবশ্যই আমার দেওয়া টিপস গুলো ফলো করতে হবে না হয় এই পোস্ট কস্ট করে পইড়েন না আর । হুদাই কাজের কাজ না করলে পোস্ট পড়ে কি হবে ।

তো জানিনা আমার এই পোস্ট গুগলে র‍্যাঙ্ক করবে কিনা এত র‍্যাঙ্ক নিয়ে ভাবতে পারবো না, জাস্ট আপনাদের জন্য যেভাবে লিখলে আপনাদের পড়তে এবং বুঝতে সুবিধা হবে সেভাবেই লিখে যাচ্ছি ।

প্রথম ট্রিকঃ কম্পিউটারে ব্লু লাইট ফিল্টার ব্যাবহার করা

- Advertisement -

কম্পিউটারে মূলত ব্লু লাইটের মাধ্যমে আমাদের চোখের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে থাকে । তো এখন আমাদেরকে কম্পিউটার থেকে বের হওয়া এই ব্লু লাইটটাকে কমাতে হবে বা ফিল্টার করতে হবে ।

আমি কম্পিউটারে ব্লু লাইট ফিল্টারের জন্য এক্সট্রা কোন এপ ব্যাবহার করিনা । উইন্ডোজ ১০ এর নোটিফিকেশন বারে ক্লিক করলেই Night Light এর অপশন পাওয়া যায় । ঐটাই ব্লু লাইট ফিল্টার হিসেবে আমার কাছে সেরা লাগে । প্রতিবার কম্পিউটার অন করার সাথে সাথে এটা অন হয়ে যায় আর অন না হলে আমি নিজে অন করে নেই ।

img 61154cb01ae59
কম্পিউটারে এপ ছাড়াই ব্লু লাইট ফিল্টার

তবে আপনি যদি Windows 10 ইউজার না হন অথবা লিনাক্স ইউজার হন সেক্ষেত্রে তো আপনাকে এপ ইউজ করতে হবেই । তো এজন্য আমার সাজেস্ট থাকবে কম্পিউটারের সবচেয়ে জনপ্রিয়, লাইটওয়েট এবং বেস্ট ব্লু লাইট ফিল্টার Flux ব্যবহার করার জন্য

Download Flux:

img 61154e60853bd

দ্বিতীয় ট্রিকঃ Pomy এপ দিয়ে ২০-পানি-২০-২০ রুলস মেনে চলুন

নরমালি জনপ্রিয় ২০-২০-২০ রুল হলো ২০ মিনিট পর পর আপনার কম্পিউটার স্ক্রিন থেকে চোখ সরিয়ে ২০ ফিট দূরের কোন কিছুর দিকে ২০ সেকেন্ড তাকানো । তবে এতে করে শুধু আপনার চোখের ক্ষতি কমবে আপনি যদি এর সাথে আরকেটা রুল এড করে নেন তাহলে কিন্তু মন্দ হয়না । এতে আপনার পুরো বডির ক্ষতি কমবে ।

আজকে আমি আপনাদের সাথে একটু ভিন্ন ভাবে ২০-২০-২০ রুলসটা শেয়ার করবো মানে একটু মডিফাই করে  ২০-পানি-২০-২০ রুলস শেয়ার করছি । যেটা আসলে আমি নিজে ফলো করি । এতে লাভ কি?

লাভের আগে প্রসেসটা শেয়ার করি তারপর লাভ কি সেটা আপনারাই বুঝে যাবেন ।

তো আমি যেটা করি, কম্পিউটারে Pomy এপটা ব্যাবহার করি এটা প্রতি ২০ মিনিট পর পর আমার কম্পিউটারের স্ক্রিনে চলে আসে তখন আমি ২০ সেকেন্ড ব্রেক নেই ।

কম্পিউটারের আলো থেকে ক্ষতি কমানোর এপ

তো এই ২০ সেকেন্ডে আমি যেটা করি প্রথমেই আমি আমার পাশে রাখা পানির বোতল থেকে পানি পান করি তারপর ২০ সেকেন্ড দূরে কোথাও তাকিয়ে থাকি । এতে করে আমার শরীর হাইড্রেটেডও থাকে আবার চোখও কিছুটা রেস্ট পায় । এই Pomy এপ আসলেই কাজের ।

img 6112823a97afc

Download Pomy:

  • Pomy For Windows
  • Stretchly For Linux (লিনাক্সের জন্য Pomy এপ নাই তাই যারা লিনাক্স ইউজার তারা এই এপটা ব্যবহার করতে পারেন)
  • Pomy For Mac

তৃতীয় ট্রিকঃ কম্পিউটার-ল্যাপটপের রেডিয়েশন থেকে বাঁচার উপায়

 

কম্পিউটার-ল্যাপটপের রেডিয়েশন আমাদের শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর এতে আমাদের ক্যান্সার হতে পারে । শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে টিউমার দেখা দিতে পারে । এখন আমি আপনাদের সাথে রেডিয়েশন থেকে বাঁচার কিছু উপায় শেয়ার করবো ।

যতটা সম্ভব রাউটার থেকে দূরে থাকুন

ওয়াইফাই এর রাউটার থেকেও রেডিয়েশন বিচ্ছুরিত হয় তাই যতটা সম্ভব ওয়াইফাই রাউটার থেকে দূরত্ব বজায় রাখুন ।

আমরা যারা পিসি ইউজার দেখা যায় যে আমাদের ওয়াইফাই কানেকশনের জন্য Ethernet ক্যাবল দিয়ে পিসিতে কানেক্ট করা লাগে । তো এজন্য রাউটার আমাদের পিসির কাছাকাছিই থাকে তো তারপরও যতটা দূরে রাখা যায় চেস্টা করুন ।

রাতে ঘুমানোর সময় রাউটার অফ রাখুন এবং গর্ভবতী নারীদের ক্ষেত্রে রাউটার থেকে দূরে থাকা জরুরি ।

আশেপাশে কিছু গাছপালা রাখুন

বিশ্বাস করুন বা নাই করুন, প্রকৃতপক্ষে ৩ টি উদ্ভিদ রয়েছে যা কিছু EMF বিকিরণ শোষণ এবং দ্রবীভূত করতে সাহায্য করে, সেইসাথে কিছু বিষাক্ত পদার্থ এবং অভ্যন্তরীণ দূষণ ও শোষণ করে । এসব গাছ আপনার কম্পিউটারের ডেস্কে বা রোমে রাখতে পারেন ।

রেডিয়েশন কমায় এমন কিছু গাছের তালিকা দেয়া হলোঃ

ঘৃতকুমারী (Alo Vera)

অ্যালোভেরা একটি অত্যন্ত নিরাময়কারী উদ্ভিদ। এটি তার পাতার মাধ্যমে ইএমএফ বিকিরণ শোষণ করতে পারে । এটি একটি খরা-সহনশীল উদ্ভিদ, তাই এটির যত্ন নেওয়া এবং আপনার বাড়ির আশেপাশে রাখা খুব সহজ। একটি অতিরিক্ত সুবিধা, যদি কখনো কোথাও কেটে যায়, এটি খুব কাজে আসতে পারে!

ক্যাকটাস

ইএমএফ বিকিরণ শোষণে একটি অত্যন্ত কার্যকর উদ্ভিদ । আমার ডেস্কটপ কম্পিউটারের চারপাশে বেশ কয়েকটি ছোট ক্যাকটাস গাছ আছে।

সানসেভেরিয়া

সাপের উদ্ভিদ নামেও পরিচিত, এটি একটি ছোট গাছ যার পাতা আপনার কম্পিউটার থেকে বিকিরণ শোষণে কার্যকর।

ওয়্যারলেস গ্যাজেট ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন

ল্যাপটপ বা একটি ডেস্কটপ ব্যবহার করার সময় আমরা অনেকেই ওয়ারলেস কীবোর্ড এবং মাউস ব্যবহার করি । ওয়্যারলেস ডিভাইসগুলি নিজেরাই একটি ক্ষুদ্র রেডিও -ফ্রিকোয়েন্সি ক্ষেত্র নির্গত করতে পারে যা ক্ষতিকারক হতে পারে । বেশিরভাগ ওয়ারলেস ডিভাইস থেকেই রেডিয়েশন হয় ।

ল্যাপটপ কোলে নেয়া থেকে বিরত থাকুন

অনেকেই ল্যাপটপ কোলে নিয়ে বসে কাজ করেন বা কম্বলের নিচে নিয়ে কাজ করেন এভাবে কাজ করা স্বাস্থ্যসম্মত না কারণ আপনি একটা রেডিয়েশন ডিভাইস কোলে নিচ্ছেন । তাই ল্যাপটপ নিচে কোথাও রেখে কাজ করুন ।

সময়মতো খাওয়া দাওয়া করুন

এটি শুনে Silly ফিল হতে পারে তবে আসলেই এক গবেষণায় দেখা যায়, অধিকাংশ মানুষ কম্পিউটারে কাজ করার সময় খাওয়া দাওয়া ছেড়ে কাজে ব্যস্ত থাকেন। আমি নিজেও থাকি । এটা শরীরের জন্য একটি খারাপ অভ্যাস ।

স্বাস্থ্যকর খাদ্য খাওয়া, এবং প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার সত্যিই শরীরকে কম্পিউটার বিকিরণের বিরুদ্ধে লড়াই করার সেরা সুযোগ দেয়।

 

Read More:

শেষ কথা, প্রয়োজন ছাড়া মোবাইল-কম্পিউটার ব্যাবহার করবেন না এবং যতটা তাড়াতাড়ি সম্ভব মোবাইলে আপনার কাজ সেড়ে ফেলুন ।

পোস্টের একদম শেষ প্রান্তে চলে এসেছি যদি এখনো কারো কোন সমস্যা থেকে থাকে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন অথবা নিচ থেকে আমাদের সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে যোগাযোগ করতে পারেন

Copy Post Link:
- Advertisement -

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *