কিছুদিন আগের কথা কলেজ থেকে বাসায় ফিরছিলাম।তো রাস্তায় দাঁড়িয়ে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলাম।ঠিক তখনই আমাদের কলেজের জুনিয়র ব্যাচের একটা সুন্দরী মেয়েকে দেখলাম রাস্তা দিয়ে হেটে আসছে।তো সে এসে ঠিক আমার সামনে দাঁড়িয়ে একটা সাদা খাম ব্যাগ থেকে বের করে আমার হাতে ধরিয়ে দিয়ে তড়িৎ বেগে চলে গেলো।আমি কিছুক্ষণ ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে দাঁড়িয়ে থাকলাম।ভাবলাম এটা কি হলো।তারপর আমার মনে হলো খামে কি থাকতে পারে!

তখনোই আমার মনে হলো আরে ভেতরে লাভ লেটার নেই তো!এটা মনে হতেই আমি খুশিতে মনেমনে লাফ দিয়ে উঠলাম।আমি আবার চির সিঙ্গেল সাথে মেয়েটাকে আগে থেকেই একটু আধটু পছন্দ করতাম।তাই আর কিছু ভাবতে পারছিলাম না।বাস এসে যাওয়ায় আমি বাসে উঠে পরলাম।কিন্তু মনে তখনো আমার আনন্দের বীণা বেজে চলেছে।আমার মনে হচ্ছিল কখন যে আমি বাসায় পৌঁছব,আর কখন যে চিঠিটা পড়বো!একবার মনে হলো বাসেই পড়বো নাকি!

তারপর ভাবলাম না থাক বাসায় যেয়েই পড়বোনে।বাসায় এসে ১০ মিনিটের মাঝে খাওয়া দাওয়া কমপ্লিট করে রুমে গিয়ে রুম আটকিয়ে দিয়ে বিছানায় গিয়ে আয়েশ করে শুলাম।তারপর চিঠির খামটা খুলে দেখি খামের ভেতর দুইটা কাগজ।একটা বড়ো আরেকটা ছোট।তো আমি বড়োটা দিয়েই শুরু করলাম।চিঠিতে লিখা ছিলো, আমা জানপাখিটা তোমাকে যে আমার এতো ভালো লাগে যে আর কি বলবো!তোমাকে দেখলেই আমার দুনিয়াটা উলটা পালটা হয়ে যায়।

তুমি কি যানো আমি প্রতিদিন ফেইসবুকে তোমার প্রোফাইলে ঘন্টার পর ঘন্টা পরে থাকি।একটা পোস্ট ১০ বার করে পড়ি।তোমার ছবির দিকে ঘন্টার পর ঘন্টা তাকিয়ে থাকি।কিন্তু তুমি আমার দিকে একবারও তাকাও না।কিন্তু তোমার প্রতি আমার ভালবাসা এতোই বেড়ে গেছে যে প্রকাশ করতে না পারলে আমি দম ফেটে মারাই যেতাম।তাই আজ আমার ভালবাসার কথা জানিয়ে দিলাম।আশা করি কালকে কলেজে এসে চিঠির জবাবটা দিবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here